সারা রাত আল্লাহর তাসবিহ পাঠ করে এই মাছ

আসমান-জমিন ও এগুলোর মধ্যে যা কিছু আছে, সব কিছু আল্লাহর তাসবিহ পাঠ করে। আল্লাহর পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষণা করে।







এমন কিছু নেই, যা আল্লাহর পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষণা করে না। কিন্তু তাদের এই তাসবিহ পাঠ সাধারণ মানুষ উপলব্ধি করতে পারে না। পবিত্র কোরআনে মহান আল্লাহ ইরশাদ করেন, ‘সাত আকাশ, পৃথিবী ও এগুলোর মধ্যে যা কিছু আছে, সব কিছুই তাঁর (আল্লাহর) পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষণা করে। আর এমন কিছু নেই, যা তাঁর প্রশংসা, পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষণা করে না। কিন্তু তোমরা তাদের পবিত্রতা ও মহিমাকীর্তন বুঝতে পারো না। অবশ্যই তিনি সহিষ্ণু, ক্ষমাশীল।’ (সুরা : বনি ইসরাঈল, আয়াত : ৪৪)







পবিত্র কোরআনে দাউদ (আ.) সম্পর্কে বর্ণিত হয়েছে, ‘আমি (আল্লাহ) নিয়োজিত করেছি পর্বতকে, যাতে তারা সকাল-সন্ধ্যায় তার সঙ্গে আমার পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষণা করে। এবং সমবেত বিহঙ্গকুলকেও। সবাই ছিল তার অনুগত।’ (সুরা : সদ, আয়াত : ১৮-১৯)







আকাশ-বাতাস সম্পর্কে ইরশাদ হয়েছে, ‘তুমি কি দেখোনি যে আসমান ও জমিনে যারা আছে তারা এবং সারিবদ্ধ হয়ে উড়ন্ত পাখিরা আল্লাহর তাসবিহ পাঠ করে? প্রত্যেকেই তাঁর সালাত ও তাসবিহ জানে। তারা যা করে সে সম্পর্কে আল্লাহ সম্যক অবগত। (সুরা : নূর, আয়াত : ৪১)

বজ্র সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘আর বজ্র তার সপ্রশংস তাসবিহ পাঠ করে।’ (সুরা : রাদ, আয়াত : ১৩)







সম্প্রতি, বিজ্ঞানীরা এই তথ্যটি আবিষ্কার করেছে। ক্যালিফোর্নিয়ায় কিছু হাউসবোট-বাসিন্দা গভীর রাতে শুনতে পান এক অদ্ভুত আওয়াজ। যা জলের গভীর থেকে ভেসে আসছিল। আর জলের গভীর থেকে আসা সেই আওয়াজ এতটাই গোলমেলে যে, তারা এই আওয়াজকে মিলিটারি কর্মকাণ্ড থেকে শুরু করে ভিনগ্রহের প্রাণীদের বচসা পর্যন্ত ভেবেছিলেন।







পরে জানা যায়, জলের তলা থেকে আসা ওই আওয়াজ আসলে ‘মিডশিপম্যান’ নামের এক মাছের। সারা রাত ধরে তারা যে আওয়াজ করে, তাকেই তারা নাম দিয়েছে ‘মাছের সংগীত’।